মহান বিজয় দিবস সম্পর্কে এই তথ্য কতটা অর্থবহ ?

450 views
0

এমন লাখো কাঁকন বিবির সংসার আর হরিদাসীর সিঁথীর সিঁদুরের বিনিময়ে অর্জিত ভুখন্ডের নাম বাংলাদেশ। তিরিশ লাখ শহীদ আর দশ লক্ষ মায়ের অভূতপূর্ব আত্মত্যাগ যে স্বাধীন সার্বভৌম ভূখন্ডের জন্ম দিয়েছিলো আজ সেই ভূখণ্ড তার ৪৮তম বছর পূর্ণ করলো। বাঙ্গালী জাতির গৌরবান্বিত অধ্যায়, জাতির জনকের আজন্ম লালিত স্বপ্ন “স্বাধীনতা”, আমাদের স্বাধীনতা। স্বাধীনতা অর্জনের পথে রক্ত ঢেলে দেয়া সেই সকল বীর যোদ্ধাদের জন্যে নিরন্তর বিনম্র শ্রদ্ধা।

বাঙালি জাতি তথা বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হয়েছিল ১৭৫৭ সালে পলাশীর যুদ্ধে নবাব সিরাজুদ্দৌলার পরাজয়ের মাধ্যমে। তারপর শুরু হয় ইংরেজ শাসনের নামে ঊপনিবেশিক শোষন, লুন্ঠিত হয় মানবতা। ২০০ বছরের অধিক সময় ধরে চলা শোষনের বিরুদ্ধে একসময় প্রতিবাদে ফুসে ওঠে আপামর জনতা। তারই ফলশ্রুতিতে, দ্বি-জাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে ভাগ হয়ে ১৯৪৭ সালে সৃষ্টি হয় পাকিস্তান ও ভারত নামক দুটি রাষ্ট্রের। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠতার কারণে বর্তমান বাংলাদেশ, তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান নাম ধারণ করে যুক্ত হয় পাকিস্তানের সাথে। সৌহার্দ্য ও  সমঅধিকারের আশায় যাত্রা শুরু হলেও, বাঙালি জাতি আবার সেই ঊপনিবেশিক শাসনের কবলে পতিত হয়। চাকরি, শিক্ষা এমনকি ভাষার নামে এই জাতির উপড় চালানো হয় অমানবিক অত্যাচার। বাঙালি তখন অনুধাবন করে, তাদের মুক্তির একমাত্র পথ নিজেদের স্বাধীন সার্বভৌম ভূখন্ড। শুরু হয় এক নতুন স্বপ্নের পথে চলা, এক নতুন লক্ষ্য অর্জনের প্রস্তুতি।

মহান বিজয় দিবস সম্পর্কে আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন

Asked question