fbpx
Nov 14, 2020
263 Views

ইন্টারনেটের আসক্তি দুর করার জন্য ৬ টিপস

Written by

ইন্টারনেটের আসক্তি দুর করার জন্য ৬ টিপস

আপনি যদি বার বার আপনার ফোনের দিকে তাকানো আপনার সামাজিক মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলি পরীক্ষা করে এবং ঘন ঘন সাইন ইন করা অনিবার্য বলে মনে করেন তবে আপনি ইন্টারনেটের আসক্তিতে ভুগতে পারেন।

ইন্টারনেটের আসক্তি তখনই ঘটে যখন আপনি ইন্টারনেটের ব্যবহারের উপর নির্ভরশীল হন যখন তা পাঠ্যদান করা ক্রমাগত উঁকি দেওয়া বা সামাজিক মিডিয়া ব্যবহার করা হয়।

অনেকে এই আসক্তিটিকে মাদকের আসক্তির সাথে তুলনা করেছেন কারণ এটি আপনার স্বাস্থ্য, কাজের কর্মক্ষমতা, দৈনন্দিন জীবন, অন্যের সাথে ব্যস্ততা এবং মানসিক প্রক্রিয়াটিকে ড্রাগের একইভাবে প্রভাবিত করে। ২০১৪ জুড়ে প্রায় ৪২০ মিলিয়ন মানুষ ইন্টারনেটে আসক্ত হয়েছিল।

এই জাতীয় পরিসংখ্যান দেখায় যে ইন্টারনেট আসক্তি দিন দিন আরও সাধারণ এবং বাস্তব হয়ে উঠছে। আপনি যদি নিজেকে এবং আপনার প্রিয়জনকে এর সাথে ভোগেন বলে মনে করেন তবে এটি কাটিয়ে ওঠার জন্য কয়েকটি টিপস মেনে চলতে পারেন। তা জানতে শেষ পর্যন্ত পড়ুন

ইন্টারনেটের আসক্তি দুর করার জন্য ৬ টিপস

১. আপনার আসক্ত হয়েছে তা স্বীকার করুন

যে কোনও সমস্যা সমাধানের প্রথম পদক্ষেপটি আপনার কোনও সমস্যা আছে তা স্বীকার করা। এটি আপনার উন্নতির দিকে প্রথম বিজয়। আপনার সমস্যা আছে বলে আপনি নিজের সাথে সৎ হয়ে উঠেন এবং এটি পুরো পরিস্থিতির স্পষ্টতা নিয়ে আসে। এছাড়াও এটি আপনাকে উপলব্ধি করে যে আপনার জন্য ইন্টারনেটের ব্যবহার কতটা স্বাস্থ্যকর

২. স্মার্টফোনের ব্যবহার কমিয়ে ফেলুন

ডিজিটাল হলো এমন কিছু যা আপনি নিজেরাই করতে পারেন যদি তা করার এবং শক্তি থাকে। আপনি যখন বুঝতে পারবেন যে ইন্টারনেটের আসক্তিটি আপনার পক্ষে খারাপ এবং এটি আপনার জীবনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যায় আপনি দূরত্ব বজায় রাখতে শুরু করতে পারেন।

আপনি আপনার অনলাইন সেশনটি ৩০ মিনিটের মধ্যে সীমাবদ্ধ করতে পারেন। প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ের পরে ইন্টারনেট ব্যবহার না করার বিষয়ে আপনি কিছু নিয়ম তৈরি করতে পারেন। এটি আপনাকে পরিচালিত এবং স্ব-নিয়ন্ত্রিত রাখবে।

৩. যোগাযোগের ধরণগুলি পরিবর্তন করুন

আপনি যখন আপনার ফোনের মাধ্যমে সারাদিন আপনার বন্ধুকে মেসেজ করছেন তখন প্যাটার্নটি পরিবর্তন করুন এবং সরাসরি মুখোমুখি তাদের সাথে কথা বলার জন্য তাদের সাথে দেখা করুন।

একইভাবে আপনি যদি অনলাইন গেমগুলিতে আসক্ত হন তবে আপনি এগুলি বহিরঙ্গন গেমগুলির সাথে প্রতিস্থাপন করতে পারেন। অথবা আপনি ভিডিও গেমস স্টোরগুলিতে যেতে পারেন এবং আপনার কম্পিউটার এবং কনসোল থেকে আপনার হাত বন্ধ রাখতে আপনার বন্ধুদের সাথে খেলতে পারেন।

৪. নিয়মিত একটি রুটিন অনুসরণ করুন

একটি রুটিন আপনাকে আরও সুসংহত ভাবে পরিচালিত করে। আপনি যদি কোনও রুটিন ছাড়াই হঠাৎ করে জীবনযাপন করছেন আপনার এটি পরিবর্তন করা দরকার। ইন্টারনেট পরিচালনা আসক্তির সমস্যা সমাধানের মূল সময়টাই ম্যানেজমেন্ট। আপনাকে ইন্টারনেট ব্যবহারের পাশাপাশি একটি সময়সূচী তৈরি করতে এবং আরও বেশ কয়েকটি বিষয়ের জন্য সময় তৈরি করতে হবে।

এইভাবে প্রতি সংক্ষিপ্ত বিরতি পরে আপনার ফোনে চেক করার জন্য অনুরোধ মুছে ফেলা হবে। আপনি ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্যও একটি সময় নির্বাচন করতে পারেন তবে এটি রুটিনের অংশ হবে।

৫. আপনার প্রয়োজনীয় কাজ শেষ করুন

আপনি প্রথমে যে কাজগুলি করতে চান তাতে মনোনিবেশ করুন। এটি নির্ভর করে আপনি কী করেন এবং কীভাবে আপনি এটি করেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি ছাত্র হন তবে আপনি বাড়িতে এসে প্রথমে হোমওয়ার্ক শেষ করার এবং পরে সমস্ত কিছু করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

একইভাবে, আপনি যদি ব্যবসায়ী হন তবে আপনার সভাগুলি আপনার সময়সূচি প্রথমে এবং তারপরে পরে ইন্টারনেট ব্যবহার সহ সমস্ত কিছুকে অগ্রাধিকার দিতে পারেন।

৬. বাইরে খেলাধুলা ও গুরোত্বপুর্ন কাজে অংশ নিন

কম্পিউটার বা স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহার না করে আপনি অনেক কিছুই করতে পারেন। যোগ্যতা বোধ করার জন্য এবং নিজের মানের সময় ব্যয় করার জন্য আপনি ক্রীড়া দল, স্বেচ্ছাসেবক প্রোগ্রাম, নাগরিক গোষ্ঠী এবং এই জাতীয় সম্প্রদায়গুলিতে অংশ নিতে পারেন।

এই জিনিসগুলির জন্য আপনাকে বাইরে যেতে হবে এবং ইন্টারনেটে যা ঘটছে তা আপনার মনকে ঘিরে রেখে কয়েক ঘন্টা ব্যস্ত থাকতে হবে। আপনি নিজের আবেগগুলি সেখানকার লোকদের সাথে ভাগ করে নিতে পারেন এবং ইন্টারনেট ব্যবহার না করে সম্পূর্ণ হওয়া বোধ করতে পারেন।

আপনি নিজেকে এই সমস্যা থেকে বের করতে ইচ্ছুক হলে এই টিপসটি ব্যবহার করা খুব উপকারী প্রমাণিত হতে পারে। বারবার ইন্টারনেটের আসক্তিতে না পড়ার জন্য নিশ্চিত হয়ে নিন যে আপনি যখন আসক্ত হয়ে গেছেন তখন বুঝতে পারছেন কীভাবে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়। আপনার চোখ এবং মন খোলা রাখা সতর্ক ও স্বাস্থ্যকর থাকার একটি ভাল উপায়। এই টিপসটি ব্যবহার করুন এবং এগুলি নিয়মিত অনুসরণ করতে ভুলবেন না

আর হ্যাঁ, ফেসবুকে আমাদের সাথে সংযুক্ত হতে ভুলবেন না!

Article Categories:
internet
https://techtunes.com.bd

হেই টেকলাভারস,আমি চেষ্টা করব আপনাদের নতুন কিছু দেওয়ার এবং অবশ্যই সেগুলা হবে আমার রিয়েল লাইফ এক্সপেরিয়েন্স থেকে, হেল্প ডেস্কে যেগুলা প্রশ্ন জমা পরবে সেগুলার উত্তর আপনাদের যথাসাধ্য সঠিকভাবে দেওয়ার চেষ্টা করবো আপনারা আমার টিউন গুলো সব ভালভাবে পড়বেন এবং বুঝার চেষ্টা করবেন, যদি কোথাও বুঝতে কোন অসুবিধা হয় কমেন্টে জানাবেন আমি চেষ্টা করবো আরোও ক্লিয়ার কন্সেপ্ট দিতে ইনশাআল্লাহ 🙂সবশেষে সবার জন্য শুভকামনা এবং সবাই আমার জন্য দুয়া করবেন যেন আমি ভাল কিছু অবশ্যই করতে পারি 🙂

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *