Graphic Design (A to Z ফ্রিল্যান্সিং পর্ব – ৩)

+গ্রাফিক্স ডিজাইন কি?

আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে গ্রাফিক্স ডিজাইন আসলে কি! আচ্ছা তার আগে আমাকে বলুন এমন কিছু কি আছে যাতে গ্রাফিক্স ডিজাইন নেই?! সব কিছুতে ডিজাইন আছে, পৃথিবী-পৃথিবীর বাইরে সব কিছুতেই একটা ডিজাইন আছে। তা প্রাকৃতিকভাবে হোক বা কৃতিমভাবে। আপনি হয়ত তা দেখার চেষ্টা করছেন না বা খেয়াল করছেন না। একটু খুজে দেখুন কোন জিনিসটায় ডিজাইন নেই! এবার আসুন সংজ্ঞায় দেয়ার চেষ্টা করি…নিজের মত করে সংজ্ঞা দিচ্ছি, আসলে গ্রাফিক্স ডিজাইনের সংজ্ঞা এক কথায় দেওয়া সম্ভব নয়..তারপরও চেষ্টা করছি.. ” যা কিছু ডিজাইনড সবই গ্রাফিক্স ডিজাইন ” ”একটি ক্রিয়েটিভ প্রসেস যা আর্ট এবং টেকনোলজী এর সমন্বয়ে আইডিয়াগুলো প্রকাশ করে তাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলে” (আমি আর্ট ও টেকনোলজী …আমার নিজের থেকেও বেশি পছন্দ করি) বিখ্যাত ডিজাইনার Neville Brody এর মতে”ডিজাইন প্রয়োজনসমূহ, তথ্য এবং কালারের এমন একটি সংশ্লেষন যা এর অংশসমূহের সমষ্টির থেকেও বেশি কিছু তৈরি করে” (তার এই সংজ্ঞার জন্য কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরুষ্কারও পাইছেন…আমি বাংলায় হয়তো ঠিক ভাবটা প্রকাশ করতে পারিনি তবে তিনি এই সংজ্ঞায় অনেক কিছু বোঝাতে চেষ্টা করেছেন) উপরের সংজ্ঞাগুলো বিশ্লেষন করলে যা পাই তা হল… গ্রাফিক্স ডিজাইন এমন একটি বিষয় যার মাধ্যমে আপনার মনের ভাব, কিছু প্রয়োজন, তথ্য ও কালারের সমন্বয়ে আর্ট ও টেকনোলজীর সাহায্যে উপস্থাপন করতে পারবেন। উপরের সংজ্ঞাগুলোয় আসলে টেকনিক্যাল দিকগুলো ফুটে ওঠে যা হয়তো কারো কারো কাছে বুঝতে কঠিন হতে পার… আরওএকটু সহজ করে দিই..Nothing is better than example… আপনি হয়তো লোগো ডিজাইন, বিজনেস কার্ড ডিজাইন, ইন্টেরিওর-এক্সটেরিওর ডিজাইনের কথা শুনে থাকবেন একটা লোগোতে একটা কোম্পানীর বিষয়বস্তু/নাম/বর্ননা/কাজ ইত্যাদি ডিজাইনের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়একটা বিজনেস কার্ডে ডিজাইনের মাধ্যমে একজন বিজনেসম্যান এর বিভিন্ন তথ্যগুলো দেওয়া হয়একটা ইন্টেরিওর বা এক্সটেরিওর ডিজাইনে একটা বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানের ডিজাইন করা হয় এরকম উদাহরন আরও দেয়া যায়..আস্তে আস্তে পাবেন এগুলো সবই গ্রাফিক্স ডিজাইন। গ্রাফিক্স ডিজাইন কেন? গ্রাফিক্স ডিজাইন এর সংজ্ঞাই যেহেতু মৌলিকভাবে দেয়া যাচ্ছে না অর্থাত নির্দিষ্ট করে দেয়া যাচ্ছে না, আপনার এ প্রশ্নের উত্তরও নির্দিষ্ট করে দিতে হিমশিম খেতে হয়! উপরের কথাগুলো বিশ্লেষন করলেই আপনি হয়ত আপনার উত্তর পেয়ে যাবেন। আবারও বলছি আপনার আশেপাশের বস্তুগুলো ভালোভাবে লক্ষ্য করুন দেখুন তাতে একটি ডিজাইন আছে এবং তা একটি অর্থও প্রকাশ করছে এবং তার একটি প্রয়োজনও আছে।মূলত এ বিষয়গুলোর জন্যই গ্রাফিক্স ডিজাইন। সৃষ্টির শুরু থেকেই সবকিছুতে ডিজাইন ছিল..ডিজাইন হচ্ছে.. ডিজাইন হবে মানুষের হাতে ডিজাইন করা শুরু হয় আনুমানিক খ্রিষ্টপূর্ব ৫০০০ বছর আগে থেকে। তবে নিদর্শন হিসেবে বিভিন্ন গুহায় যে প্রমান পাওয়া যায় তাতে বলতে হয় এর শুরু অনেক আগে থেকেই। আর এটা শুরু হইছে মানুষের প্রয়োজনেই। খ্রিষ্টপূর্ব ১২০০ বছর আগের একটি নিদর্শন মিউজিয়ামে সংরক্ষিত আছে যেটিই মানুষের হাতে সবচেয়ে আগের জটিল ডিজাইন বলে ধারনা করা হয়(পিকচার দিতে পারছি না বলে দু:খিত…আমার কাছে এর একটি পিকচার আছে ) সেখান থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত অনেক বছর চলে গেছে। আজ পৃথিবীর দিকে তাকিয়ে দেখুন আর সেদিনের কথা একবার চিন্তা করুন অনেক কিছু ডিজাইন করা হইছে..অনেক নতুনত্বের সৃষ্টি হইছে…সুন্দর থেকে সুন্দরতর! সবই মানুষের প্রয়োজনে। আগে করা হত মাটিতে, পাতায়, খাতায় আর এখন করা হয় ডিজিটাল পদ্ধতিতে আরও সুন্দর করে এত বকবক করার মূল কারন হল..শুধু এটুকই বলতে চাই গ্রাফিক্স ডিজাইন/ডিজাইন মূলত মানুষের প্রয়োজনেই তা মনের খোরাক মেটানোর জন্য হোক বা পেশা হোক বা ব্যবসায়িক কারন হোক মূলত মানুষের প্রয়োজনেই ডিজাইন। গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শুরু করবেন? এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে একটা কথা বলে নিতে চাই…মানুষ জন্মের সময় কিছু নিয়ে আসে না সবই তাকে অর্জন করে নিতে হয়… আপনি কিছু জানেন না..মনে করুন আপনার এখন জন্ম হইছে… আপনিও আপনার অর্জন করার যাত্রা শুরু করুন, মন দিয়ে চেষ্টা করুন অবশ্যই সফল হবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখবেন?

সূচনা: গ্রাফিক্স ডিজাইন খুব একটা সহজ বিষয় নয় যে আপনি চাইলেন আর শিখে গেলেন। এর জন্য প্রতিনিয়তই আপনাকে অনেক বেশি বেশি চেষ্টা করতে হবে আর থাকতে হবে সাধনা ও ধৈর্য্য। যাই হোক, আমার এই পোস্টটির টিপসগুলো দেখেই যে আপনি প্রফেশনাল হয়ে উঠবেন এমন কিন্তু না বাট আপনি অনেক অগ্রসর হতে পারবেন এ বিষয়ে আমি সিউর। নিচের দেওয়া কয়েকটি টিপস দেখে সে অনুয়াযী কাজ করুন।

  1. ভাল কোম্পানিগুলোর ভাল মানের গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপরে করা বাংলা ভিডিও টিউটোরিয়াল কিনে ফেলেন। তারপর যখন আপনি ওসব দেখে কিছুটা দক্ষ হয়ে উঠবেন এর উপরে তখন নিচের কয়েকটি পয়েন্ট অনুসরন করেন। টিউটোরিয়াল গুলো কিনতে বেশি খরচ হবে না প্রায় ৩৫০-৫০০৳ টাকার মধ্যেই পাবেন। যা একটি কোর্সের ১০০০০ থেকে ১৫০০০ হাজার এর তুলনায় অনেক কম।
  2. ইউটিউবে নতুন নতুন ভার্সনের টিউটোরিয়াল সার্চ করে ও সব প্রায় ফলো করেন!
  3. গ্রাফিক ডিজাইনের জন্য ভাল-ভাল অনেক সাইট আছে ওইসব সাইটে প্রায় ভিজিট করুন, ওদের টিউটোরিয়াল ফলো করুন, তা বোঝার চেষ্টা করেন, প্রতিদিন সেসব প্রাকটিস করুন। আমার মতে আমার প্রথম পছন্দটা হল এই সাইটটা:http://psd.tutsplus.com/
  4. প্রফেশনাল ডিজাইনারদের সাথে ভাল সম্পর্ক রাখুন। তাদের কাছে বড় বড় বিষয়গুলি নিয়ে আলাপ আলোচনা করুন। সবার সাজেশনই মাথায় রাখুন।
  5. ফ্রি PSD পাওয়া য়ায় এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে। সেসব ওয়েবসাইট থেকে ফাইলগুলো নামিয়ে নিয়ে তা ওপেন করে দেখুন তারা কীভাবে তাতে কাজগুলি করেছে। সে অনুযায়ী আপনি করার চেষ্টা করুন।
  6. অনেক সময় ডিজাইনের জন্য মাথায় ভাল কোন আইডিয়া আসে না। তাই কখনও কোন আইডিয়ার জন্য graphicriver.net এখানে থেকে ভাল ভাল ডিজাইনের আইডিয়া নিতে পারেন।
  7. আপনার পছন্দ সবসময় মার্জিত রাখুন। সিমপল রাখার চেষ্টা করেন আপনার ডিজাইনকে। আপনার ডিজাইন সবার মাঝে শেয়ার করেন, সবার মতামত নেন।
  8. সব সময় এইসব ডিজাইন এর সাথে আপ টু ডেট (Update) থাকার চেষ্টা করেন।

আবার বলতেছে আপনাকে সব সমস্যার সমাধান দেবে ইন্টারনেট, শুধু বুদ্ধি খাটিয়ে কাজে লাগান।। সবকিছু আপনাকে দিয়ে সম্ভব।।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখবেন?

চিত্রলেখ বিষয়ক শিল্পকর্মকেই গ্রাফিক্স ডিজাইন বা Graphic design বলা হয়ে থাকে।সহজভাবে বলতে গেলে টেক্ট বা নকশা ব্যবহার করে সুন্দর এবং মানসম্মত চিত্রকর্ম তৈরি করাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন বলা হয়ে থাকে।আরও সহজভাবে বলতে গেলে বলতে হয় আপনি নিশ্চই প্রথম আলো বা অন্য কোন সংবাদ মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের চিত্র দেখতে পান,বিভিন্ন কোম্পানির এড দেখতে পান ।এই যে চিত্রগুলো আপনি দেখতে পান এই চিত্রগুলোকেই বলা হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন।আগের যুগে যে চিত্রকর্মগুলো শিল্পীরা হাতে একে তৈরি করত এখন সেইসব জিনিস তৈরি করা হচ্ছে কম্পিউটারের কিছু অসাধারন সফটঅয়্যার দিয়ে।এতে করে চিত্রগুলোকে আরও বাস্তবসম্মত করা সম্ভব হচ্ছে।কিছু সময় উপযোগী গ্রাফিক্স ডিজাইন সফটঅয়্যার হচ্ছে-adobe photoshop cs ,adobe illustrator cs,quark xpress etc. বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গ্রাফিক্স ডিজাইন: আমরা সাধারনত অপ্রয়োজনীয় কাজে সময় ব্যয় করে থাকি তারপর যখন পিছিয়ে পড়ি তখন করার কিছু থাকে না।আমরা ইচ্ছে করেই কোন কিছুকে গুরুত্ব দেই না।গ্রাফিক্স ডিজাইন ,থ্রি ডি এনিমেশন এর মত বিষয় গুলো আমাদের জানা থাকলে আমরা বেকারত্বের অন্ধকার থেকে রেহাই পেতাম।আমাদের আর হতাশার দীর্ঘশ্বাস ফেলতে হত না।হতাশা কাটাতে আপনার একটি কম্পিউটার+ইন্টারনেট হলেই যথেষ্ট শুধু থাকতে হবে আপনার দৃঢ় সংকল্প তাহলেই আপনি সব বাধাকে পিছনে ফেলে সামনের উজ্বল আলো দেখতে পারবেন।এই মুহুর্তে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের চাহিদা ব্যাপক।তাই আপনি যদি একটু চেষ্টা করেন তাহলে মাত্র কয়েকমাসের ভিতরেই গ্রাফিক্স ডিজাইন আয়ত্বে এনে নিজেকে বদলে দিতে পারেন।একজন ভালমানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার মাসে এক-দেড় লক্ষ টাকা ইনকাম করেন এ রকম উদাহরন খুব কম নেই।

গ্রাফিক্স ডিজাইনের সফলতা

প্রশ্নই আসতে পারে প্রতি মাসে একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনারের আয় কত হতে পারে? এ সম্পর্কে ডিজাইনারদের বেতন নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ডিজাইনার স্যালারিজ এর মতে, একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার প্রতি বছরে গ্রাফিক্স ডিজাইন বা এ সম্পর্কিত চাকরি বা কাজ করে ১ লাখ ডলার সেই হিসেবে বাংলাদেশে প্রায় ৮০ লাখ টাকা আয় করতে পারে। বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইনে ডিপ্লোমাধারীর বেতন মাসে সাধারণত ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। তবে ব্যাচেলর ফাইন আর্টসে ব্যাচেলর ডিগ্রিধারীদের বেতন মাসিক ১ থেকে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়া অনলাইন মার্কেটপ্লেসে আপনি একটি লোগো ডিজাইন করলে ৫ থেকে শুরু করে ২ হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে। তবে দক্ষতার ক্ষেত্রে ও বেশি ক্রিয়েটিভ কাজ হলে এটি ৫ হাজার ডলার পর্যন্তও হতে পারে। এছাড়া একটি ওয়েবসাইটটের ফাস্ট পেজ ডিজাইন করার ক্ষেত্রে ৫০ ডলার থেকে শুরু করে ৩ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। ৯৯ডিজাইন’স ডটকম, ফ্রিল্যান্সার কনটেস্ট, ওডেস্কসহ অনেক ওয়েবসাইট বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে আপনি এই কাজগুলো পাবেন। মূলত কাজের মান ও ক্রিয়েটিভি এর উপরই ভিত্তি করে আপনার আয় নির্ভর করবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইনাদের ভবিষ্যৎ:

বর্তমান বিশ্বকে গ্রাফিক্স ডিজাইন ছাড়া চিন্তাও করতে পারবেন না। আপনি সারাদিন যেসব পণ্য ব্যবহার করেন- সাবান, শ্যাম্পু, তেল ইত্যাদি ইত্যাদি এসব পণ্যের বিজ্ঞাপন এবং প্যাকের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন প্রয়োজন। আবার ধরুন নির্বাচনী প্রচারণার জন্য- ব্যানার, পোস্টার, স্টিকার ইত্যাদি কাজের জন্যও গ্রাফিক্স ডিজাইনের প্রয়োজন হয়। মোটকথা হলো গ্রাফিক্স ডিজাইনের চাহিদার শেষ নাই আর দিন দিন এর চাহিদা বেড়েই চলেছে। তো বোঝতেই পারছেন যে এই ভবিষ্যৎ কি হতে পারে। বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গ্রাফিক্স ডিজাইন: আমরা সাধারনত অপ্রয়োজনীয় কাজে সময় ব্যয় করে থাকি তারপর যখন পিছিয়ে পড়ি তখন করার কিছু থাকে না।আমরা ইচ্ছে করেই কোন কিছুকে গুরুত্ব দেই না। গ্রাফিক্স ডিজাইন আমাদের জানা থাকলে আমরা বেকারত্বের অন্ধকার থেকে রেহাই পেতাম। আমাদের আর হতাশার দীর্ঘশ্বাস ফেলতে হত না। হতাশা কাটাতে আপনার একটি কম্পিউটার+ইন্টারনেট হলেই যথেষ্ট সাথে থাকতে হবে আপনার দৃঢ় সংকল্প তাহলেই আপনি সব বাধাকে পিছনে ফেলে সামনের উজ্বল আলো দেখতে পারবেন। এই মুহুর্তে বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে গ্রাফিক্স ডিজাইনারের চাহিদা ব্যাপক। তাই আপনি যদি একটু চেষ্টা করেন তাহলে মাত্র কয়েকমাসের ভিতরেই গ্রাফিক্স ডিজাইন আয়ত্বে এনে নিজেকে বদলে দিতে পারেন। একজন ভালমানের গ্রাফিক্স ডিজাইনার মাসে এক-দেড় লক্ষ টাকা ইনকাম করেন এ রকম উদাহরন খুব কম নেই।

11 Comments

  1. shironaam dot com May 26, 2019
  2. Core Tuner May 26, 2019
    • Kolpok Kajal May 26, 2019
  3. Raihan May 26, 2019
    • Ibrahim Hossain May 26, 2019
  4. Neel Projapoti June 16, 2019
  5. Monjurul Rahat July 26, 2019